শুক্রবার, ২৫ নভেম্বর ২০২২, ০৩:৫৩ অপরাহ্ন

বড়লেখায় অবৈধভাবে খাস জমি খনন; ট্রাক্টর ও এক্সেভেটর জব্দ

জাফলং নিউজ ডেস্ক / ২৩ শেয়ার
আপডেট : রবিবার, ২৬ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ৬:২৪ অপরাহ্ন

বড়লেখায় অবৈধভাবে খাস জমি খনন; ট্রাক্টর ও এক্সেভেটর জব্দ



বড়লেখা প্রতিনিধি :: মৌলভীবাজারের বড়লেখায় সরকারি খাসজমির উপরিভাগের মাটি কাটায় দুই ব্যক্তিকে দুই বছর করে বিনাশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। রোববার (২৬ সেপ্টেম্বর) দুপুরে বড়লেখা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট খন্দকার মুদাচ্ছির বিন আলী ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন। একই সময় দুটি ট্রাক্টর ও একটি এক্সেভেটর (খননযন্ত্র) জব্দ করা হয়েছে। দণ্ডপ্রাপ্ত ব্যক্তিরা হলেন স্থানীয় বন্ধন ব্রিকসের ব্যবস্থাপক দুলাল সাহা (৪৫) ও এক্সেভেটর চালক মো. সুহেল রানা (৩০)। ভ্রাম্যমাণ আদালত সূত্রে জানা গেছে, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে রোববার দুপুরে বড়লেখা উপজেলার নিজবাহাদুরপুর ইউনিয়নের কবিরা-চরিয়া এলাকায় ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান পরিচালনা করা হয়। অভিযানকালে সরকারি খাসজমির উপরিভাগের মাটি (টপ সয়েল) এক্সেভেটরের (খননযন্ত্র) মাধ্যমে গভীর করে কেটে ইটভাটায় নেওয়ার প্রমাণ পাওয়া যায়। এই অপরাধে স্থানীয় বন্ধন ব্রিকসের ব্যবস্থাপক দুলাল সাহা ও এক্সেভেটর চালক মো. সুহেল রানাকে আটক করা হয়। এরপর ঘটনাস্থলে ভ্রাম্যমাণ আদালত বালুমহাল ও মাটি ব্যবস্থাপনা আইনে তাদের প্রত্যেককে দুই বছর করে বিনাশ্রম কারাদণ্ড প্রদান করেন। এ সময় মাটি পরিবহন কাজে ব্যবহৃত দুটি ট্রাক্টর ও একটি এক্সেভেটর (খননযন্ত্র) জব্দ করা হয়। পরে ট্রাক্টর দুটি থানায় ও এক্সেভেটর (খননযন্ত্র) স্থানীয় ইউপি সদস্যের জিম্মায় রাখা হয়েছে। অভিযানে বড়লেখা থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মো. জাহাঙ্গীর কবিরসহ সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা সহযোগিতা করেন। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা খন্দকার মুদাচ্ছির বিন আলী বলেন, বেশ কিছুদিন ধরে সরকারি খাস জমি থেকে টপ সয়েল কাটার অভিযোগ পাওয়া যাচ্ছিল। এরপরিপ্রেক্ষিতে অভিযান পরিচালনা করা হয়। অভিযানকালে দুটি ট্রাক্টর, একটি এক্সেভেটরসহ হাতেনাতে দুজনকে আটক করা হয়। পরে তাদের বালুমহাল ও মাটি ব্যবস্থাপনা আইনে জেল দেওয়া হয়েছে। এ ধরণের অভিযান নিয়মিত পরিচালনা করা হবে।


আরও পড়ুন
Theme Created By ThemesDealer.Com