রবিবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২২, ০১:২৫ পূর্বাহ্ন

মৌলভীবাজারে ফ্লাটার এপস ডেভেলপমেন্ট কোর্সের বিদায় অনুষ্ঠান সম্পন্ন

মৌলভীবাজার প্রতিনিধি :: / ২৫ শেয়ার
আপডেট : রবিবার, ২০ ফেব্রুয়ারী, ২০২২, ৬:০৫ অপরাহ্ন

গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের উদ্যোগে বাংলাদেশের তরুণ-তরুণীদের দক্ষতা উন্নয়নে বিনামূল্যে ২০০ ঘন্টার ‘ট্রেনিং ফর মোবাইল এপ্লিকেশন ডেভেলপমেন্ট’ (ক্রস প্লাটফর্ম) কোর্সের বিদায় অনুষ্ঠান সম্পন্ন হয়েছে।

রবিবার (২০ ফেব্রুয়ারি) সকালে পৌরসভার ইংলিশ বাজার সাইন্স কেয়ারে এ বিদায় অনুষ্ঠান সম্পন্ন হয়।

অনুষ্ঠানের শুরুতে প্রশিক্ষনার্থীরা গ্রুপ ভিত্তিক তাদের প্রজেক্ট প্রেজেন্টেশন উপস্থাপন করেন।  যার মধ্যে উল্লেখযোগ্য কিছু প্রজেক্ট হচ্ছে ট্রাভেল ৩৬০, পেট ফুড, ডিজিটাল শপ, বাই অন অনলাইন, হ্যাপি অর্কিড, অনলাইন লাইব্রেরি, অসাম, সাহায্যকারী।

এসময় উপস্থিত থেকে প্রশিক্ষণার্থীদেরকে দিক নির্দেশনা প্রদান ও প্রজেক্ট রিমার্কিং করেন মৌলভীবাজার মোবাইল এপস ডেভেলপমেন্ট (ক্রস প্ল্যাটফর্ম) ইন্সট্রাক্টর মিনহাজুল ইসলাম ও কো-অর্ডিনেটর জনি জামিল।

জানা যায়, গত ২০২১ সালের সেপ্টেম্বর থেকে মৌলভীবাজারে শুরু হয় এই প্রশিক্ষণ কোর্স। দীর্ঘ ৫ মাসে প্রায় ৬০ টা ক্লাস সম্পন্ন হয়। জেলার বিভিন্ন অঞ্চল থেকে প্রশিক্ষণার্থীরা সর্বমোট ২০০ ঘন্টার এই কোর্সে অংশগ্রহণ করে।

কোর্সটিতে সুযোগ পেয়ে প্রশিক্ষণার্থী তারেক আহমদ বলেন, সরকারের দেয়া বিনামূল্যের এই কোর্সটি সম্পন্ন করতে পেরে আমি খুবই আনন্দিত৷ অনেক কিছু শেখা হয়েছে৷ এখন আমি চাইলে যেকোনো এপসের ইউআই কোডিং করতে পারবো। আমাদের ‘ট্রাভেল’ এপ সবার কাছে ভালো লেগেছে। আমরা এই এপসের মধ্যে আরোও নতুন নতুন কিছু ফিচার এড করবো।

প্রশিক্ষণার্থী পরমা দেব পূজা বলেন, ফ্লাটারের মজার বিষয় হচ্ছে এখানে একটা প্রোগ্রামিং ল্যাংগুয়েজ দিয়ে এন্ড্রয়েড, আইওএস, ওয়েব তিনটা প্লাটফর্মের এপস ডেভেলপ করা যায়। কোর্সটি সফলভাবে সম্পন্ন করতে পারায় খুবই ভালো লাগছে। ইতিমধ্যে আমার কয়েকটা কম্পলিট প্রজেক্ট হাতে আছে। ফ্লাটার নিয়েই ক্যারিয়ার গড়তে চাই৷

প্রজেক্ট কো-অর্ডিনেটর জনি জামিল বলেন, প্রথমেই ধন্যবাদ জানাই বেবিলন রিসোর্স কোম্পানিকে প্রশিক্ষণার্থীদেরকে এতো সুযোগ সুবিধা দেয়ার জন্য। তাছাড়া আইসিটি মন্ত্রণালয়কে ধন্যবাদ না দিলেই নয়, বর্তমান সময়ে যেসকল প্রজেক্ট বাস্তবায়ন করছে এগুলো আমাদের বেকার সমস্যা সমাধানে অগ্রনী ভূমিকা রাখবে।

তিনি আরোও বলেন, এই প্রজেক্টের পেছনে সরকার কুটি কুটি টাকা ব্যয় করছে শুধুমাত্র তোমাদেরকে দক্ষ হিসেবে গড়ে তোলার জন্য৷ তোমরা এই সুযোগটা কাজে লাগাও। দেশের উন্নয়নে অংশীদার। সবার জন্য শুভ কামনা।

মৌলভীবাজার মোবাইল এপ ডেভেলপমেন্ট (ক্রস প্ল্যাটফর্ম) ইন্সট্রাক্টর মিনহাজুল ইসলাম বলেন, ‘আইসিটি মন্ত্রণালয় কর্তৃক গৃহীত এই প্রকল্পগুলো যথাযথ ভাবে বাস্তবায়িত হলে নিঃসন্দেহে আমাদের বেকারত্ব কিছুটা হলেও কমে যাবে। নতুন নতুন উদ্যোক্তা তৈরী হবে যারা নিজেরা সুগঠিত হওয়ার পাশাপাশি  বাকিদেরকেও সুগঠিত ও দক্ষ হতে সহায়তা করবে।

বিদায়ী প্রশিক্ষণার্থীদের উদ্দ্যেশ্যে তিনি আরোও বলেন, তোমরা যারা কমপ্লিট প্রজেক্ট তৈরি করেছো তারা হয়তো ভালো ভাবেই ফ্লাটারের সাথে পরিচয় হয়ে গিয়েছো। একের পর এক নতুন প্রজেক্ট করবে তাহলে শীঘ্রুই তুমরা ফুল স্টক ডেভেলপার হতে পারবে। আমরা এই পর্যন্ত যতটুকু কাজ শিখেছি বা জানি। এতে আমরা যেকোনো এপ এর ইউআই ডিজাইন করতে পারি। আমাদের সবাইকে নিয়মিত প্রেকটিস করতে হবে। সবার উজ্জ্বল ভবিষ্যৎ কামনা করি।


আরও পড়ুন
Theme Created By ThemesDealer.Com