রবিবার, ১৯ মে ২০২৪, ১১:৩০ অপরাহ্ন

ফেঞ্চুগঞ্জে চার শিক্ষার্থীর বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা

ফেঞ্চুগঞ্জ প্রতিনিধি / ৬৬ শেয়ার
আপডেট : সোমবার, ২০ ডিসেম্বর, ২০২১, ৯:৫৭ পূর্বাহ্ন

ফেইসবুকে বিভ্রান্তি মূলক বিভিন্ন পোস্ট দিয়া সরকার ও দেশের সুনাম ক্ষুন্ন করার অপরাধে ফেঞ্চুগঞ্জের কলেজ শিক্ষার্থী আরিফুল ইসলাম ও তার তিন সহযোগীর বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা হয়েছে। আসামীরা পলাতক রয়েছে। মঙ্গলবার (১৪ ডিসেম্বর) সন্ধায় ফেঞ্চুগঞ্জ থানায় মানিককোনা গ্রামের পারভেজ আহমদ বাদী হয়ে এই মামলা দায়ের করেন।

পুলিশ জানায়, ২০১৮ সালের ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের ২৫, ২৯, ৩১, ৩২ নম্বর ধারা মোতাবেক ফেইসবুকে বিভ্রানন্তি মূলক বিভিন্ন পোস্ট দিয়া সরকার ও দেশের সুনাম ক্ষুন্ন করার অপরাধে আসামীদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে। মামলাটি বর্তমানে সিলেট অতিরিক্ত চীফ জুডিসিয়্যাল ম্যজিস্ট্রেট আদালতে চলমান আছে। জি. আর, মামলা নং ৪১২/২০২১ ইংরেজী।

আসামীরা হলেন- ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলার মানিককোনা গ্রামের মোঃ আজিজুল ইসলামের ছেলে ও মদন মোহন কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের মাস্টার্স এর শিক্ষার্থী আরিফুল ইসলাম(২৫) প্রধান আসামী। তার সহযোগী একই গ্রামের মৃত তৈয়বুর রহমানের ছেলে তাহমিদুর রহমান তানিম(২০), সুলতানপুর গ্রামের উনু মিয়ার ছেলে সোলেমান উদ্দীন (২৩) ও গোয়ালাঘাট গ্রামের হাবিব আহমদের ছেলে মারুফ আহমদ(২৮)।

প্রধান আসামী আরিফের ছোট ভাই মুনতাসিম ইসলাম বলেন, আমার ভাইয়ের বিরুদ্ধে যেসব কথা বলা হচ্ছে তা সত্যি নয়। আমার ভাইকে মিথ্যা মামলায় ফাসানো হচ্ছে।

রবিবার(১৯ ডিসেম্বর) মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এস.আই এমরান হোসেন ঘটনাটি নিশ্চিত করে বলেন, আসামীদের গ্রেফতার করতে গুপ্তচর নিয়োগ দেয়া হয়েছে। আসামীরা পলাতক থাকায় এখনো গ্রেফতার করা সম্ভব হয়নি।

তিনি আরোও বলেন, আসামীদের বিরুদ্ধে সরকার বিরোধী প্রচারণা, মিছিলের নামে ভাংচুর, সরকারি সম্পদ বিনষ্টসহ বিভিন্ন অভিযোগ রয়েছে।

ফেঞ্চুগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (তদন্ত) মোঃ আনোয়ার জাহিদের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি এই মামলার বিষয়ে বিস্তারিত কথা বলতে অপারগতা প্রকাশ করেন। এক পর্যায়ে তিনি বলেন আরিফুল ইসলামের বিরুদ্ধে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সরকার বিরোধী, মানহানিকর মিথ্যা তথ্য প্রচারের অভিযোগ রয়েছে। মামলাটি বিজ্ঞ আদালতে চলমান রয়েছে। বলেই তিনি ফোনের সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেন।


আরও পড়ুন